বিখ্যাত ব্যাটসম্যানদের বিখ্যাত ব্যাটের গল্প

ক্রিকেটে একজন ব্যাটসম্যান ব্যক্তিগতভাবে যত কীর্তি গড়েন তার প্রধান হাতিয়ার ব্যাট দিয়ে। ঠিক তেমনি বোলারও বল দিয়ে তার সব কীর্তি গড়েন। কিন্তু ব্যাটসম্যানের ব্যাট তার সঙ্গী হিসেবে এক মাঠ থেকে আরেক মাঠে ভ্রমণ করলেও বোলারদের পক্ষে নিজস্ব বল দিয়ে বোলিং করা সম্ভব হয়না। এজন্য তারা হয়তো আক্ষেপ করতেই পারেন। কিন্তু ব্যাটসম্যানদের এক্ষেত্রে কোনো আক্ষেপ নেই।

পূর্বে ব্যাটসম্যানরা নিজেদের ইচ্ছামতো ব্যাট ব্যবহার করতে পারতেন। কিন্তু বর্তমানে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির পক্ষ থেকে ব্যাটের নির্দিষ্ট মাপ দেওয়া আছে। যা লম্বায় ৩৮ ইঞ্চি এবং প্রস্থে ৪.২৫ ইঞ্চির বেশি হবে না। বর্তমানে একজন ব্যাটসম্যানকে এই মাপের মধ্যে কোনো ব্যাট দিয়ে খেলতে হয়। তবে এরপরও বিভিন্ন ব্যাটসম্যানের ব্যবহার করা ব্যাটের মধ্যে সুস্পষ্ট পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়।

গত দশকেও তারকা ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে প্রস্তুতকারক কোম্পানির লোগো দেখা যেতো। কিন্তু বর্তমানে ক্রিকেটে অধিক পরিমাণে বাণিজ্যের ছোঁয়া লাগায় ব্যাটের নামের পরিবর্তে স্পনসর করা কোম্পানির নাম দেখা যায়। যেমন সাকিব আল হাসানের ব্যাটে থাকে বাংলালিঙ্কের লোগো। শচীন টেন্ডুলকারকে দেখা গেছে ‘এমআরএফ’ ব্যাট দিয়ে খেলতে। বর্তমানে বিরাট কোহলিকেও তেমন দেখা যায়। তবে আজ আমরা আলোচনা করবো সাবেক ও বর্তমানের পাঁচজন বিখ্যাত ক্রিকেটারের বিখ্যাত ব্যাট নিয়ে। তবে এই তালিকায় স্থান পাননি অনেক রথী মহারথী।

ব্রায়ান লারা, গ্রে নিকোলস স্কুপ

যখন প্রথমবারের মতো গ্রে নিকোল স্কুপ বাজারে ছাড়া হয় তখন কোম্পানির স্টিকার ব্যাটের সামনে ও পেছনের উভয় প্রান্তের গ্রিপ পর্যন্ত প্রশস্ত ছিল। ক্রিকেট বিশ্বে এই ব্যাটকে ধ্বংসাত্মক অস্ত্র হিসেবে বিবেচনা করা হতো। আর সেই অস্ত্রের রং ছিল লাল ও নীলকান্তমনি নীলের অপূর্ব এক সমন্বয়। গ্রে নিকোলস স্কুপ নিয়ে অনেক ক্রিকেটার মাঠে নেমেছেন, তবে এদের মধ্যে ব্রায়ান লারার চেয়ে অধিক বিখ্যাত আর কেউ ছিলেন না।

ব্রায়ান লারা; Image Source: Getty Images

ব্রায়ান লারা তার ক্যারিয়ারের অধিকাংশ সময়ই মাঠে নেমেছেন গ্রে নিকোলস স্কুপ হাতে। গড়েছেন বেশ কয়েকটি বড় ইনিংস। এর মধ্যে ১৯৯৪ সালে অ্যান্টিগুয়াতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩৭৫ রানের ইনিংসটি অন্যতম। এছাড়া ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে ওয়ারউইকশায়ারের হয়ে ৫০১ রানের দানবীয় ইনিংসটিও খেলেন এই গ্রে নিকোলস স্কুপ ব্যাট হাতে। তবে লারা টেস্টে রেকর্ড ৪০০ রানের ইনিংসটি খেলেন এমআরএফ ব্যাট হাতে।

মাইকেল বেভান, পুমা মিলিচ্যাম্প

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক তারকা ব্যাটসম্যান মাইকেল বেভান দেশের হয়ে অসংখ্য ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলেছেন। ওডিআই ও টেস্টে তিনি মোট ৬৭৯৭ রান করেছেন। এর মধ্যে ওডিআইতে তার সেঞ্চুরির সংখ্যা ছয়টি। এখন পর্যন্ত তিনি একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ব্যাটিং গড়ের মালিক। ক্রিকেট মাঠে এতসব কীর্তি তিনি তার ব্যক্তিগত ব্যাট দিয়ে গড়েছেন। আর এর মধ্যে সবচেয়ে বিখ্যাত পুমা মিলিচ্যাম্প, যে ব্যাট দিয়ে তিনি ১৯৯৯ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৬৫ রানের ইনিংস খেলেন। তার এই ইনিংসের সহায়তায় ধ্বংসস্তুপ থেকে উঠে নাটকীয়ভাবে ফাইনালে জায়গা করে নেয় অস্ট্রেলিয়া।

মাইকেল বেভান; Image Source: All Sports

পুমার মিলিচ্যাম্প ব্যাটের অন্যতম বিশেষত্ব হলো এটি সম্পূর্ণ হাতে তৈরি। জুলিয়ান মিলিচ্যাম্প ও জোনাথন হল ১৯৮৭ সালে ‘মিলিচ্যাম্প অ্যান্ড হল’ প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। এই কোম্পানি ক্রিকেটের বিভিন্ন সরঞ্জাম বিক্রি করে থাকে। এদের কাছে থেকেই পুমা ব্যাট কিনে নিজস্ব নাম যুক্ত করে বাজারজাত করেছিল।

কেভিন পিটারসেন, উডওয়ার্ম

সাবেক ইংলিশ তারকা কেভিন পিটারসেন মাঠ ও মাঠের বাইরে বেশ কেতারদুরস্থ হয়ে থাকতেন। এমনকি তার ব্যবহৃত ব্যাটেও রুচিশীলতার পরিচয় পাওয়া গেছে। তিনি ক্যারিয়ারের প্রথম অ্যাশেজ থেকেই উডওয়ার্ম টর্চ ব্যাট ব্যবহার করেছেন। হলুদ রঙের গ্রিপ লাগানো চিকন এই ব্যাটের উল্টো পিঠ জুড়ে কোম্পানির লোগো লাগানো। লোগোর সাথে কেপির নিজের চরিত্রের মিল ছিল।

কেভিন পিটারসেন; Image Source: Getty Images

কেভিন পিটারসেন তার ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্টেই গ্লেন ম্যাকগ্রাদের বিপক্ষে দুর্দান্ত ব্যাটিং করে অর্ধ শতক তুলে নেন। তখন পিটারসেনের পাশাপাশি তার ব্যাটও বেশ আলোচিত হয়। তবে এই কোম্পানির ব্যাট দিয়ে শুধুমাত্র পিটারসেন নন, খেলেছেন আরো অনেক ক্রিকেট মহারথী। তার মধ্যে অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ ও রাসেল আর্নল্ড অন্যতম।

পিটার হ্যান্ডসকম্ব, কোকাবুরা সার্জ

ক্রিকেট বিশ্বে কোকাবুরা অতিপরিচিত এক নাম। বিশেষ করে তাদের তৈরি ব্যাট ও বল মানের দিক থেকে উপরের অবস্থানে। এই ব্যাট হাতে দীর্ঘদিন খেলতে দেখা গেছে সনাৎ জয়সুরিয়াকে। সাধারণত কোকাবুরা ব্যাট হাতে খেলতে দেখা যায় অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের। এশিয়ার দেশগুলোতে এই ব্যাটটি খুব বেশি জনপ্রিয় নয়।

পিটার হ্যান্ডসকম্ব; Image Source: Getty Images

সম্প্রতি কোকাবুরা তাদের ব্যাটের তালিকায় আরো একটি সংস্করণ যোগ করেছে। যার নাম রাখা হয়েছে কোকাবুরা সার্জ প্রো। এই ব্যাট হাতে প্রথম দেখা গেছে অজি ক্রিকেটার পিটার হ্যান্ডসকম্বকে। এছাড়ায় কিউই ব্যাটসম্যান টিম শেইফার্টও এই ব্যাট দিয়ে খেলেন। হালকা নীল বর্ণের কোকাবুরা সার্জ ব্যাটটি দেখতেও বেশ আকর্ষণীয়। এবং পূর্বের ভারী ও মোটা ব্যাটের চেয়ে এই এই ব্যাটটি অনেক হালকা ও আকারেও বেশ পাতলা।

জেমিমাহ রদ্রিগুয়েজ, লেভার অ্যান্ড উড

লেভার অ্যান্ড উডের ব্যাটগুলো দেখতে একেবারেই সাদামাটা। তবে এই ব্যাট হাতে খেলতে দেখা গেছে অনেক বিখ্যাত ক্রিকেটারকে। এমনকি শচীন টেন্ডুলকারও এই ব্যাট দিয়ে খেলেছেন। তবে ব্যাটের ওপর স্পনসর করা কোম্পানির স্টিকার লাগিয়ে। বর্তমানে ভারতের নারী ক্রিকেট দলের জেমিমাহ রদ্রিগুয়েজকে লেভার অ্যান্ড উডের ব্যাট হাতে খেলতে দেখা যায়। গত বছর নারীদের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সময় জেমিমাহ এই ব্যাট হাতেই নজর কেড়েছেন।

জেমিমাহ রদ্রিগুয়েজ; Image Source: Getty Images

লেভারের ব্যাটগুলো একেবারে সমতল হয়ে থাকে। খুব বেশি সাজসজ্জাও করা হয়না। শুধুমাত্র ব্যাটের উপরের দিকে কোম্পানির লোগো দেওয়া থাকে। এছাড়া আর কোনো ব্র্যান্ডিং করা হয়না। তবে মানের দিক থেকে বেশ উপরের দিকেই রয়েছে লেভার অ্যান্ড উডের ব্যাটটি।

Featured Image: Getty Images

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *