বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণার আগে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন

বিশ্বকাপ ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে বিভিন্ন দল তাদের ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করছে। ইতোমধ্যে নিউজিল্যান্ড, ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মতো দলগুলো বিশ্বকাপের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে। আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করবে। এই ২৫ সদস্যের মধ্যে কে থাকছেন আর কে থাকছেন না এই প্রশ্ন নিয়ে এখন সরগরম ক্রিকেট পাড়া। বিশেষ করে তামিম ইকবালের সাথে ওপেনিংয়ে কে থাকছেন এটা নিয়েই সবচেয়ে বেশি প্রশ্ন। এছাড়া চোট থেকে ফেরা পেসার তাসকিন আহমেদ বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা পাবেন কিনা সে বিষয়েও প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

বিশ্বকাপে অংশ নেয়া প্রতিটি দলকে আইসিসির বেঁধে দেওয়া নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যেই ১৫ সদস্যের বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণা করতে হবে। আইসিসির বেঁধে দেওয়া সেই সময় শেষ হবে আগামী ২৩ এপ্রিল। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন চাইছেন এর আগেই বিশ্বকাপের স্কোয়াড ঘোষণা করতে। তবে তার কথা অনুযায়ী এই স্কোয়াডই চূড়ান্ত স্কোয়াড নয়। কোন কারনে পরিবর্তন হতে পারে আজকের ঘোষণা করা স্কোয়াড। ফলে আজকে যারা বিসিবির ১৫ সদস্যের তালিকায় থাকছেন তাদের মধ্যে সবাই শেষ পর্যন্ত যে ইংল্যান্ডের বিমানে উঠতে পারবেন সেই ভরসা খুবই কম। আজ দুপুর 12 টায় মিরপুরে বিসিবির প্রধান কার্যালয়ে বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করবেন নির্বাচক প্যানেল। কিন্তু এর আগেই মেলাতে হবে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর। চলুন সে সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ইমরুল কায়েস কী জায়গা পাবেন?

বাংলাদেশের বিশ্বকাড স্কোয়াড ঘোষণার আগে সবচেয়ে বেশি প্রশ্ন ঘুরছে ইমরুল কায়েসকে নিয়ে। তিনি ১৫ সদস্যসের তালিকায় থাকবেন কিনা এটা নিয়ে বেশ আলাপ-আলোচনা হচ্ছে। নিউজিল্যান্ড সফরের তিন ম্যাচের ওডিআই সিরিজের প্রত্যেক ম্যাচে একমাত্র তামিম ইকবাল ছাড়া টপ অর্ডারের অন্যান্য ব্যাটসম্যানই রান করতে ব্যর্থ হয়েছেন। ফলে নির্বাচকদের বিশ্বকাপের আগে টপ অর্ডার নিয়েই সবচেয়ে বেশি ভাবতে হচ্ছে।

ইমরুল কায়েস; Image Source: Ittefaq

গত বছর ওয়েস্ট সফরে ইমরুল কায়েস ব্যাট হাতে রান খরায় ভুগলেও ঘরের মাটিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছেন। দুই সেঞ্চুরিসহ তিন ম্যাচে ১১৬ গড়ে মোট ৩৪৯ রান করেছেন। ফলে ১৫ সদস্যের তালিকায় তিনি জায়গা পেতেই পারেন। তবে এর জন্য তাকে লড়তে হবে সৌম্য সরকার এবং লিটন দাসের বিপক্ষে।

বিশ্বকাপের আগে কী ফিট হতে পারবেন মুস্তাফিজ?

বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশ দলের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার ইনজুরিতে পড়েছেন। এদের মধ্যে দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য মুস্তাফিজুর রহমান রয়েছেন। বাম হাতে এই পেসার বর্তমানে গোড়ালির সমস্যায় ভুগছেন। এছাড়া দলের আরেক সদস্য রুবেল হোসেনও চোটে পড়েছেন। অন্যদিকে সাইলেন্ট কিলার হিসেবে পরিচিত মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ কিছুদিন আগেই কাঁধের চোট থেকে ফিরেছেন।

মুস্তাফিজুর রহমান ; image source: espncricinfo.com

তবে নির্বাচকদের মূল চিন্তা মুস্তাফিজকে নিয়ে। বিশ্বকাপের আগে তিনি পুরোপুরি ফিট হতে পারবেন কিনা এটা নিয়েই বেশি ভাবতে হচ্ছে। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান বিশ্বকাপের আগেই পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠবেন। কিন্তু আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজে তার খেলার সম্ভাবনা কিছুটা কম। এখন প্রশ্ন হচ্ছে মুস্তাফিজ বিশ্বকাপের আগে পুরোপুরি ফিট হলেও কি নিজের শতভাগ দিতে পারবেন?

দলে কী অতিরিক্ত কোনো স্পিনার নেওয়া হবে?

এবারের বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ইংল্যান্ডের মাটিতে যেখানে পেসাররাই হচ্ছেন ম্যাচের মূল নিয়ন্ত্রক। কিন্তু ঐতিহাসিকভাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রধান শক্তি স্পিনাররা। গত বছর থেকে স্পিন বোলিংয়ে সেরা সাফল্য সাকিব আল হাসান ও মেহেদী হাসান মিরাজের। তারা দুইজন যে দলে জায়গা পাবেন এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। কিন্তু এই দুজনের বাইরে আরও একজন স্পিনার নিতে আগ্রহী বিসিবি।

মেহেদী হাসান মিরাজ Image source: Dhaka Tribune

যদিও পার্টটাইম স্পিনার হিসেবে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ সাকিব ও মিরাজকে পিছন থেকে শক্তি যোগান দেন। কিন্তু এরপরও বিশ্বকাপের মতো মঞ্চে শক্তিমত্তায় কোন ঘাটতি রাখতে ইচ্ছুক নয় বিসিবি। সে কারণেই দলে একজন তৃতীয় স্পিনার রাখার কথা ভাবছে নির্বাচকরা। সেক্ষেত্রে ১৫ সদস্যের তালিকায় দেখা যেতে পারে নাঈম হাসান অথবা নাজমুল হাসান অপুকে।

তাসকিন আহমেদ কী থাকবেন স্কোয়াডে?

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে পেসারদের মধ্যে মোস্তাফিজুর রহমান রুবেল হোসেন ও সাইফউদ্দিনের অন্তর্ভুক্তি প্রায় নিশ্চিত। এদের বাইরে পেসারদের মধ্যে আলোচনায় ছিলেন তাসকিন আহমেদ ও শফিউল ইসলাম। কিন্তু তাসকিন আহমেদ কিছুদিন আগেই চোট থেকে ফিরেছেন। সে কারণেই নির্বাচকরা এখন তার বিকল্প কাউকে ভাবছেন। ফলে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে তিনি জায়গা পাবেন কিনা এ বিষয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

তাসকিন আহমেদ; Image Source: espncricinfo.com

অন্যদিকে ঘরোয়া লিগে শফিউল ইসলাম এর চেয়ে অন্যান্য তরুণ পেসারদের পারফরম্যান্স ভালো। এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নজর কেড়েছেন আবু জায়েদ রাহি। বিপিএলেও তিনি বেশ দুর্দান্ত বোলিং করেছেন। ফলে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে তাসকিন ও শফিউল ইসলাম এর পরিবর্তে তাকেই দেখা যেতে পারে।

বিশ্বকাপ স্কোয়াড কী পরিবর্তন হতে পারে?

বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণার পাশাপাশি আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্য ১৭ সদস্যের দল ঘোষণা করবে বিসিবি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আয়ারল্যান্ডের সাথে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজে ভালো পারফরম্যান্স করে বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়ার সুযোগ রয়েছে’ বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের।

স্কোয়াড ঘোষণার আগের দিন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনেরর কথা অনুযায়ী বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াড পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে সেটা নির্ভর করছে ঘরোয়া লীগ ও ত্রিদেশীয় সিরিজে খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের উপর। যে সকল খেলোয়াড়দের দলে অন্তর্ভুক্তি নিয়ে নির্বাচকরা দ্বিধাদ্বন্দ্বের রয়েছেন, তারা যদি ভাল পারফর্ম করতে পারেন তবে এই বিশ্বকাপের বিশ্বকাপ স্কোয়াড পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।

Featured Image Source: thedailystar.net

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *